ঈদের ছুটিতে খুমের রাজ্যে ভ্রমণ

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

সৌন্দর্যের আধার বান্দরবানে লুকিয়ে আছে কত শত ঝিরি ঝর্ণা খুম জানা অজানা কত কিছু। তাই এবার ঈদের ছুটিতে আমরা যাবো নাফাখুম, আমিয়াখুম, ভেলাখুম, ক্রাইক্ষ্যং ১, ক্রাইক্ষ্যং ২ ঝর্ণা দর্শনে।

যারা ট্রেকিং পছন্দ করেন, এডভ্যাঞ্চার পছন্দ করেন এমন মানুষদের জন্য এটি খুবই আকর্ষনীয় একটি জায়গা। আকাবাঁকা পাহাড়ি পথ, ঝিরির কলকল শব্দ শুনতে শুনতে ছুটে চলা, কখনো ঝিরির ঠাণ্ডা পানিতে গা এলিয়ে দিয়ে বসে থাকা এমনই সব মজাদার আনন্দময় মুহুর্ত উপভোগ করতে করতে ছুটে চলা। কখনো খাড়া পাহাড়ি পথে নেমে যাওয়া, আবার সেই পথ ধরে ধীরে ধীরে ফিরে আসা, চারদিকে সবুজের হাতছানি আর মেঘের দলের লুকোচুরি খেলা এসবই দেখতে দেখতে আমরা পৌঁছে যাবো আমিয়াখুমে।

শুধু আমিয়াখুমই নয়, সাথে থাকছে নাফাখুম, ক্রাইখ্যং ১, ক্রাইক্ষ্যং ২, ভেলাখুম, সময় হলে সাতভাইখুমও ঘুরে দেখবো আমরা।

পুরো ট্রীপটাই যেহেতু ট্রেকিং ট্রীপ তাই এই ট্রীপ আপনার যথেষ্ট পরীক্ষা নেবে। তবে এর বিনিময়ে আপনি পাবেন অপার্থিব সৌন্দর্য।

আমরা যা যা দেখার চেষ্টা করবো

  • নাফাখুম
  • আমিয়াখুম
  • ভেলাখুম
  • সাতভাইখুম
  • ক্রাইক্ষ্যং ১ ও ২

আমাদের আনুমানিক প্ল্যান

  • ২৩ তারিখ রাতে রওনা হয়ে আমরা চলে যাবো বান্দরবান।
  • ২৪ আগস্ট ভোরে পৌঁছে আমরা নাস্তা সেরে নেবো। তারপর বাস অথবা জীপে করে আমরা চলে যাবো থানচি। থানচি পৌঁছে আমরা দুপুরের খাবার খেয়ে নেবো। সেই সাথে ক্যাম্পে এন্ট্রি করে সামরা বোটে করে রওনা দিবো রেমাক্রির উদ্দেশ্যে। আঁকাবাঁকা উন্মাতাল সাঙ্গুর বুক চিরে হবে আমাদের যাত্রা। সোখান থেকে ট্রেকিং শুরু হবে আমাদের। সাঙ্গুর পার ধরে নাফাখুম হয়ে আমরা চলে যাবো থুইসাপাড়া। অথবা পদ্ম ঝিরি হয়েও যেতে পারি। নির্ভর করবে সময় এর উপর। থুইসাপাড়াতেই হবে আমাদের রাতে থাকা এবং খাওয়া।
  • ২৫ আগস্ট আমরা খুব ভোরে চলে যাবো আমিয়াখুম এর উদ্দেশ্যে। একে একে আমরা দেখে নিবো আমিয়াখুম, ভেলাখুম, সাতভাইখুম [ সম্ভব হলে ]। ফেরার পথে আমরা দেখে নেবো অপূর্ব সুন্দর ক্রাইক্ষ্যং ১ এবং ক্রাইক্ষ্যং ২ ঝর্ণা দুটো। ক্রাইক্ষ্যং ২ মূলত জোড়া ঝর্ণা। এরপর আবার ফিরে আসবো থুইসাপাড়ায়। এখানে আমরা রাতে থাকবো।
  • ২৬ আগস্ট আমরা যাবো নাফাখুম এর দিক হয়ে রেমাক্রির দিকে। এবং ঐ দিন সম্ভব হলে আরো একটি ঝর্ণা আমরা দেখে নেবো।
  • ২৭ আগস্ট আমরা রেমাক্রি থেকে থানচির দিকে ফিরে আসবো। এবং থানচি থেকে জীপ অথবা বাসে করে ফিরে আসবো বান্দরবান। সময় পেলে কিছু কেনাকাটা করে নেবো। তারপর রাতের খাবার খেয়ে আমরা ঢাকার উদ্দ্যশে রওনা করবো।
  • ২৮ আগস্ট ভোরে আমরা ঢাকা থাকবো ইনশাল্লাহ।

যাত্রা শুরুর তারিখ
আমাদের যাত্রা শুরুর তারিখ ২৩ আগস্ট। ২৮ আগস্ট ভোরে আমরা ঢাকা থাকবো ইনশাল্লাহ। মোটামুটি ৫ রাত ৪ দিনের ট্রীপ। ট্রীপ এর সময় শিডিউল পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে পরিবর্তন হতে পারে।

ইভেন্ট ফি
আমাদের ইভেন্ট ফি : ৬,৫০০ টাকা।
কোনো ধরনের কাপল পলিসি নেই। শেয়ার বেসিসে স্থানীয়দের ঘরে থাকতে হবে।

কনফার্মেশন করার নিয়ম
আপনি যদি নিশ্চিত হোন তবেই সব ভালোভাবে বুঝে শুনে কনফার্ম করুন। কনফার্ম করার শেষ সময় ১৯ আগস্ট। তবে যত দ্রুত কনফার্ম করে রাখতে পারবেন ততই ভালো। সদস্য সংখ্যা পূরণ হয়ে গেলে আমরা ইভেন্ট ক্লোজ করে দেবো।

কনফার্ম করতে হলে ২,০৪০ টাকা [ অফেরতযোগ্য ] আমাদের কাছে বিকাশ করতে হবে। অথবা আমাদের সাথে দেখা করেও হাতে হাতে টাকা জমা দিতে পারেন।

বিকাশ এবং বিস্তারিত জানতে ০১৬২৫১১৪০২০, ০১৯১১২৭১৯০৭ এই নাম্বারে যোগাযোগ করুন।

সদস্য সংখ্যা ১০ জন

এই ফি-তে যা যা থাকছে

  • ঢাকা-বান্দরবান-ঢাকা নন এসি বাসে আসা যাওয়ার খরচ
  • ট্রীপ চলাকালীন প্রতি বেলা মূল খাবার খরচ
  • সকল প্রকার গাইড খরচ
  • স্থানীয়দের কটেজে থাকা, খাবার খরচ
  • সকল প্রকার লোকাল ট্রান্সপোর্ট খরচ

হাইওয়ে নাশতা এবং যে কোনো ব্যাক্তিগত খরচ এই ইভেন্ট ফির অন্তর্ভূক্ত নয়।

ট্রিপে যা করনীয়

  • ভ্রমণের জন্য উপযোগী পোশাক পরতে হবে।
  • কেউ সাতার না জানলে সাথে নিজ দ্বায়িত্বে লাইফ জ্যকেট রাখতে পারেন।
  • কারো সাথে কোনো ধরনের খারাপ ব্যবহার করা যাবে না।
  • যে কোনো ধরনের অসুবিধায় এডমিনদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।
  • সময়ের দিকে খেয়াল রেখে ঘোরাফেরা করতে হবে।
  • অযথা সময় ক্ষেপন করা যাবে না।
  • অযথা হৈ চৈ করে অন্যকে বিরক্ত করা যাবে না।
  • যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জনা ফেলা যাবে না।
  • সাথে রেইন কোট বা ছাতা রাখতে পারেন।
  • ব্যাগের ভেতরে প্রয়োজনীয় জিনিস পলি করে রাখতে পারেন।
  • খাবার দাবার এর সময় এদিক সেদিক হতে পারে, এটা নিয়ে কোনো ওজর আপত্তি করা যাবে না।
  • যে কোনো কাজে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।
  • সহনশীল মনোভাব দেখাতে হবে।
  • কোনো ধরনের মাদক বা নিষিদ্ধ কোনো বস্তু বহন করা যাবে না।
  • ভোটার আইডি কার্ড অথবা যে কোনো ফটো আইডি এর ফটোকপি ২ কপি এবং মূল কপি অবশ্যই সাথে রাখতে হবে।
  • ফার্স্ট এইড হিসেবে ওয়ান টাইম ব্যান্ড এইড, তুলা, গজ, স্যাভলন ক্রিম, মুভ মলম অথবা স্প্রে, প্যারাসিটামল, গ্যাষ্ট্রিকের ঔষধ, স্যালাইন ইত্যাদি সাথে রাখতে পারেন।
  • ড্রাই ফুড হিসেবে চকোলেট, ক্যান্ডি, বিস্কুট, ম্যাংগোবার ইত্যাদি সাথে রাখবেন।
    একটা ছোট ডে ব্যাগ সাথে রাখবেন ।
  • অবশ্যই ১ লিটার এর দুইটা পানির বোতল সাথে রাখবেন।
  • আপনি যদি যে কোনো ব্যাপারে খুঁতখুঁত বা অভিযোগ প্রবণ হন তাহলে এই ট্রীপ আপনার জন্য নয়।
Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Booking.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *